ঢাকা: শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

কেমন হলো গিনি ওয়েডস সানি

ginny weds sunny

নাম শুনে কিছুটা ধারণা তো করতেই পারছেন গল্পের উপজীব্য কী হতে পারে। আবার এই করোনা কালে সিনেমার খরার এই সময়ে নেটফ্লিক্সের এ সিনেমা নিয়ে যদি খুব আশা করে থাকেন তবে কিছুটা নিরাশ তো আপনাকে হতেই হবে গিনি ওয়েডস সানি দেখে।

নেটফ্লিক্সে ছবির ডেসক্রিপশনে লেখা আছে, ‘ফিল গুড’, ‘রোম্যান্টিক’, ‘কমেডি’… ইত্যাদি। তবে তা যে কোন ক্ষেত্রে প্রযোজ্য সেটা নিয়ে একটা প্রশ্ন থেকেই যায়।

গিনি ওয়েডস সানিতে মুখ্যভূমিকায় রয়েছেন বিক্রান্ত ম্যাসি ও ইয়ামি গৌতম।‌ এই প্রথমবার বিক্রান্ত ও ইয়ামি জুটি বেঁধে পর্দায় এলেন।

ছবির ফার্স্ট লুকে ‘ দ্য লোল সং’ এর সুরে পা মেলাতে দেখা গিয়েছিল বিক্রান্ত ও ইয়ামিকে।‌ দু’জনেরই চোখে মুখে ছিল উচ্ছ্বাস। বিনোদ বচ্চনের প্রযোজনায় ‘ গিনি ওয়েডস সানি’-র পরিচালনার দায়িত্ব সামলেছেন পুনিত খান্না।‌ ছবির সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন পায়েল দেব এবং গান লিখেছেন কুনাল বর্মা।

আরও পড়ুন
সিনেমা হলের আমেজ হোম থিয়েটারেই

এবারে আসা যাক গল্পে। দিল্লির প্রেক্ষাপটে একেবারে পরিচিত গল্প। বাবার হার্ডওয়্যারের দোকনের জায়গা নিয়ে রেস্তরাঁ তৈরি করতে চায় সানি। আর এই দোকান পেতে গেলে বিয়ে করতে হবে তাকে। কিন্তু কোনও পাত্রী সানিকে বিয়ে করতে রাজি হয় না। উল্টো দিকে গিনির প্রেমের পরিস্থিতি বেশ জটিল। সাবেক প্রেমিক নিশান্তের (সুহেল নায়ার) সঙ্গে ব্রেকআপ-প্যাচআপ লেগেই রয়েছে। গিনিকে ছোটবেলা থেকেই পছন্দ সানির। কখনও হালে ‘পাণি’ পায়নি। কিন্তু গিনির মা শোভা জুনেজার (আয়েশা রাজা মিশ্র) আবার সানিকে পছন্দ। মায়ের সাহায্যে মেয়ের মন পেতে ঢাল-তলোয়ার নিয়ে প্রেমের ময়দানে নেমে পড়ে নিধিরাম সর্দার থুড়ি সানি। এরপর কী হয়? তা আর লেখার প্রয়োজন নেই। এ ধরনের সিনেমার দর্শকের কাছে এমন গল্পের পরিণতি জানাই।

আরও পড়ুন
একজন পর্যটকের জন্য খুললো মাচু পিচু

কাস্টিং বিপর্যয়ের বড় উদাহরণ হয়ে থাকবে সানির চরিত্রে অভিনয় করা বিক্রান্ত। সানি হয়ে উঠতে তাঁকে যথেষ্ট বেগ পেতে হয়েছে। সংলাপ ও শরীরী ভাষায় তাঁর সে চেষ্টা চোখে পড়েছে। সে তুলনায় ইয়ামি গৌতম গিনির চরিত্রে সাবলীল। তবে পুরো ছবিতে গিনির ‘কনফিউশন’ আর সানির ‘ডেসপারেশন’-এর দোলাচলে যেন হাঁসফাঁস করেছেন অভিনেতারাও। নায়িকার মন পাওয়ার যাবতীয় চেষ্টায় কয়েক দশক আগেকার নায়করাও এগিয়ে থাকবেন এ ছবির সানির চেয়ে। ফর্মুলা মেনে একটি পার্টি সং, একটি ওয়েডিং সং, একটি প্রেমে পড়ার সিকোয়েন্সের গান ও একটি বিরহের গানও ঠিক ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে চিত্রনাট্যে। জোর করে কনফিউশন তৈরি করার পাশাপাশি এ ছবির কমেডিও যেন আরোপিত।

সূত্র : আনন্দবাজার, কলকাতা টিভি, সংবাদ প্রতিদিন।

Rent for add

Facebook

for rent